চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদার উজিরপুরের তোরাপ হত্যামামলা : আইনগত সহায়তায় মানবতা

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদার উজিরপুর গ্রামের তোরাপ আলী হত্যা মামলার ফাইনাল রিপোর্টের বিরুদ্ধে বাদী নারাজি আবেদন করেছেন। আইনগত সহায়তা দিচ্ছে মানবতা সংস্থা।

মানবতা সংস্থা এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার উজিরপুর খলিফাপাড়ার তোরাপ আলী হত্যা মামলার পুলিশি তদন্ত শেষে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে। এর বিরুদ্ধে মৃত তোরাপ আলীর স্ত্রী মামলার বাদী জেসমিন খাতুন আদালতে নারাজি আবেদন করেছেন। গতকাল সোমবার এ আবেদন করা হয়।

মামলার বাদী জানিয়েছেন, জমি-জমা নিয়ে সৃষ্ট বিরোধের জের ধরে উজিরপুরের মৃত ইছাহক মণ্ডলের ছেলে তিন ছেলে সাইফুল, আশরাফুল, রশিদুলের বিরোধ বাধে। এদের বাঁশের আঘাতে তোরাপ আলী নিহত হয়। ঘটনার দিনই অর্থাৎ ২০০৯ সালের ১২ নভেম্বর সন্ধ্যায় দামুড়হুদা থানায় মামলা দায়ের করা হয়। গত ১৮ আগস্ট আসামির নাম বাদ দিয়ে পুলিশ চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করে।

মানবতা সংস্থা জানিয়েছে, ২৫ আগস্ট মামলার বাদী মানবতা সংস্থার নিকট লিখিতভাবে আবেদন করে আইনগত সহয়তা প্রার্থনা করে। এরই ভিত্তিতে মাবনতা সংস্থা সহযোগিতার হাত বাড়ায়। সংস্থার নির্বাহী পরিচালক অ্যাড. মানি খন্দকারসহ নেতৃবৃন্দ সরেজমিন তদন্ত করেন। গতকাল তোরাপ আলী হত্যা মামলার দিন ধার্য ছিলো। এ দিনে মানবতা সংস্থার আইনগত সহায়তায় মামলার বাদী বিজ্ঞ আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে নারাজি আবেদন করেন। চুয়াডাঙ্গার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত খ’ অঞ্চলে এ আবেদন করা হয়। বিজ্ঞ আদালত আবেদন গ্রহণ করেছে।

আইনগত সহায়তা প্রদানে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে মানবতার নির্বাহী পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট নেতৃবৃন্দ। আবেদনে মামলার পুনঃতদন্তের আদেশ প্রার্থনা করা হয়েছে। বিজ্ঞ আদালত এ আবেদনের প্রেক্ষিতে পরবর্তীতে আদেশ দেবেন বলে সংশ্লিষ্টসূত্রের বরাত দিয়ে মানবতা সংস্থা প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *