চুয়াডাঙ্গা জেলা রাজস্ব শাখার কর্মরত নাজির নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগ

সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের রাজস্ব শাখার নাজির নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে অনিময় দুর্নীতির ও হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার সকালে জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন যদুপুর মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি লি. রেজি. চুয়া. ৪১/১১ সেক্রেটারি আব্দুস সোবহান। লিখিত অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা বেগমপুর ইউনিয়নের ঝাঝরী বিল জল মহালটি ২০০৯ সালে জলমহাল বন্দোবস্ত নীতিমালা অনুযায়ী দীর্ঘ মেয়াদি প্রকল্পের আওতায় বন্দোবস্ত নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরে আবেদন করেও সংশ্লিষ্ট দফতরে অত্র সমিতির নামে কোনো দায় দেনা বা সার্টিফিকেট মামলা আছে কিনা জেলা প্রশাসক কর্তৃক প্রত্যয়নপত্র দাখিল করতে বলেন। গত ২১ আগস্ট তৎকালীন সেক্রেটারি আব্দুল করিম আবেদনটি করেন। ওই প্রত্যয়নপত্র পাওয়ার জন্য রাজস্ব শাখার নাজির তৎকালীন জেলা প্রশাসকের নাম ভাঙিয়ে ৫০ হাজার টাকা ঘুষদাবি করেন। সে সময় ৩০ হাজার টাকা ঘুষ প্রদান করি। ঘুষ কম হওয়ায় দীর্ঘ ৪ মাস পর প্রত্যয়নপত্রটি প্রদান করেন। এছাড়া বিভিন্ন জলমহাল লিজের সময় হলেই বিভিন্ন সমিতির নামে করিয়ে দেয়ার নামে টাকা দাবি করে আসছে। দীর্ঘদিন একই পদে একই স্থানে থাকায় বিভিন্ন অপকর্ম করেই চলেছেন নজরুল ইসলাম। বিষয়টির প্রতি জেলা প্রশাসক সুদৃষ্টি দেবেন বলে মৎস্যজীবীরা মনে করেন। লিখিত অভিযোগের অনুলিপি সচিব জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার বরাবর প্রেরণ করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের রাজস্ব শাখার নাজির নজরুল ইসলাম বলেন, ঘুষ দাবি, বা ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। অভিযোগকারীরা অবৈধ পন্থায় তাদের কাজ সিদ্ধি করতে চান। তা না করতে পেরে উল্টোপাল্টা দরখাস্ত দিয়ে বেড়াচ্ছেন তারা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *