চুয়াডাঙ্গা আমিরপুরে কাজী আলাউদ্দীনের বিরুদ্ধে একাধিক বাল্যবিয়ে পড়ানোর অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের মোমিনপুর ইউনিয়নের আমিরপুর গ্রামের কাজী আলাউদ্দীনের বিরুদ্ধে একাধিক বাল্যবিয়ে পড়ানোর অভিযোগ উঠেছে। সরকারি বিধি মোতাবেক বাল্যবিয়ে আইনকে তোয়াক্কা না করে তিনি একের পর এক বাল্যবিয়ে পড়িয়ে থাকেন বলে জানা গেছে।

এলাকাসূত্রে জানা গেছে আমিরপুর গ্রামের রহম আলীর ছেলে চুয়াডাঙ্গা রেজিস্ট্রি অফিসের দলিল লেখক কাজী মো. আলাউদ্দীন এলাকায় একাধিক বাল্যবিয়ে পড়ানোর কারণে সমালোচনার পাত্র হয়ে দাঁড়িয়েছেন। অভিযোগকারীরা জানায়, সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার কাজী আলাউদ্দীন কবিখালী গ্রামের খালপাড়ার বাক্কা আলীর ১৪ বছরের নাবালিকা মেয়ের বাল্যবিয়ে পড়ান এবং সরিষাডাঙ্গা গ্রামের রবিউলের ১৫ বছরের নাবালিকা মেয়ের বাল্যবিয়ে পড়ান। অভিযোগকারীরা বলেন,  গত ২ মাস আগে সরকারি কাজী হিসেবে আলাউদ্দীন নিয়োগ পান। তিনি শুধুমাত্র মোমিনপুর ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড অর্থাৎ কবিখালী, কাথুলী, মাছেরদাইড়, চাঁদপুর এবং শৈলগাড়ী গ্রামে প্রাপ্ত বয়স্ক নারী পুরুষের বিয়ে পড়াতে পারবেন। অথচ তিনি কাউকে তোয়াক্কা না করে মোমিনপুর ইউনিয়নের সব গ্রামেই বাল্যবিয়ে পড়িয়ে থাকেন। এলাকার সচেতন মহল অভিযুক্ত কাজী আলাউদ্দীনের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.