চুয়াডাঙ্গার হিজলগাড়িতে বিরল প্রজাতির পাখির চিকিৎসায় কতিপয় যুবক

বেগমপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার হিজলগাড়িতে বিরল প্রজাতির পাখির চিকিৎসায় কতিপয় যুবক চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছে। চিকিৎসা দেয়ায় পাখিটির অবস্থা উন্নতির দিকে যাচ্ছে। পাখিটি দেখতে উৎসুক মানুষের ভিড়।

জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়নের হিজলগাড়ি ডিহি মাঠে একটি বিরল প্রজাতির পাখি কাতরাতে থাকে। তা দেখে জনৈক সুন্নত ফকির পাখিটিকে ধরে হিজলগাড়ি বাজারে নিয়ে আসেন। স্থানীয় যুবকেরা ধারণা করে পাখিটি অসুস্থ। অসুস্থ পাখিটির চিৎকিসার জন্য স্থানীয় পশু চিকিৎসকের সরনাপন্ন হয় এবং ওষুধপত্র এনে পাখিটিকে খাওয়ায়। ওষুধ খাওয়ানোর পর পাখিটি ধীরে ধীরে সুস্থ হচ্ছে। এদিকে স্থানীয় অনেকেই ধারণা করছে পাখিটি নিশাচর। মাঠে এখন চলছে ভুট্টা লাগানোর মরসুম। ভুট্টাবীজ বপনের সময় ইদুরের হাত থেকে রক্ষা পেতে ভুট্টাবীজের সাথে বিষ মিশিয়ে চাষিরা ভুট্টাবীজ বপন করছে। ওই ভুট্টাবীজ খেয়েছে ইদুরে। নিশাচর এ বিরল প্রজাতির পাখিটি বিষ খাওয়া ঈদুর হয়ত খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। যে ভাবেই হোক অসুস্থ এ পাখিটির সম্পূর্ণ সুস্থতার জন্য স্থানীয় যুবকেরা তাদের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। বর্তমানে পাখিটি সুন্নত ফকিরের পাড়িতেই রাখা আছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *