চুয়াডাঙ্গার বোয়ালিয়ায় ইফতার পার্টিতে সরবত খাওয়াকে কেন্দ্র করে তুলকালাম

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার শ্রীকোল বোয়ালিয়ায় মসজিদে ইফতার পার্টিতে সরবত খাওয়াকে কেন্দ্র করে তুলকালামের সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বোয়ালিয়া গ্রামের মসজিদে ইফতারপার্টিতে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি থানা পর্যন্ত গড়িয়েছে।

জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার নবগঠিত নেহালপুর ইউনিয়নের বোয়ালিয়ায় মসজিদে এলাকারই আশাবুল ইফতার পার্টির আয়োজন করেন। ইফতার বণ্ঠনের দায়িত্বে অনেকের সাথে আশাদুল ও তার ভাস্তে আশরাফুলও ছিলেন। একই এলাকার জান্নালের ছেলে মঈন বিনা অনুমতিতে সরবত পান করলে আশরাফুলের সাথে বাগবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। এতে মঈন ক্ষিপ্ত হয়ে নিজ পরিবারের লোকজন ডেকে এনে আশরাফুলকে মারধর করে। পরে তার চাচা আশাদুল প্রতিবাদ করলে তাকেও মারধর করা হয়। আশরাফুল তাতক্ষণিকভাবে ডাকাতির গুজব ছড়ায়। পরে আশরাফুল ও তার সাথের লোকজন চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় অভিযোগ করতে আসেন। তিনি অভিযোগ করেন শিয়ালমারী পশুহাটে গরু কিনতে যায়। কিন্তু সুবিধা না হওয়ায় গরু না কিনে বাড়ি ফিরছিলাম। ইফতারের সময় হওয়ায় বোয়ালিয়া গ্রামের একটি মসজিদে যায়। সেখানে ইফতার আয়োজনে শরিক হই। সেখানে মারামারির এক পর্যায়ে আমার কাছে থাকা ৮০ হাজার টাকা মঈন ও জান্নাল কেড়ে নেয়।

উত্থাপিত অভিযোগ পুলিশের সন্দহেজনক মনে হলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তোজাম্মেল হক জিজ্ঞাবাদ শুরু করেন। এ পর্যায়ে আশরাফুল ইসলাম অকপটে সত্য স্বীকার করেন। তিনি বলেন টাকা কেউ নেয়নি। আমাদের সাথে মারামারি হওয়ায় মিথ্যা অভিযোগ তুলেছি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *