চুয়াডাঙ্গার তিতুদহে নাবালিকাকে জোরপূর্বক গণধর্ষণের অভিযোগ

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তিতুদহের মসজিদপাড়ায় এক নাবালিকাকে গণধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নাবালিকা ধর্ষিতাকে পিতামাতার হেফাজতে দিয়েছে পুলিশ। আজ মামলা দায়েরপূর্বক ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষা হবে পুলিশ জানিয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তিতুদহ মসজিদপাড়ার জনৈক এক ব্যক্তির নাবালিকা মেয়ে (১২) বাজার থেকে নিজবাড়িতে ফিরছিলো। নাবালিকার পরিবারের অভিযোগ পথিমধ্যে একই পাড়ার ওমর আলীর ছেলে ডালিম, মজিবারের ছেলে লুৎফর রহমান ছোট ও রহমানের ছেলে হাশেম জোরপূর্বক নাবালিকাকে মুখচেপে ধরে সিরাজুলের বাঁশ বাগানের মধ্যে নিয়ে যায়। সেখানে অভিযুক্ত তিনজন মিলে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে নাবালিকার চিৎকারে প্রতিবেশিরা ছুটে আসলে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন তিতুদহ ক্যাম্প পুলিশ। পুলিশ এবং উপস্থিত লোকজনের সম্মুখে ধর্ষণের শিকার নাবালিকা ঘটনার বর্ণনা দেয়। বিষয়টি পুলিশ উর্দ্ধতম কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেন। পরে নাবালিকাকে তার পিতামাতার হেফাজতে তুলে দেয়। আজ মামলা দায়েরপূর্বক নাবালিকার ডাক্তারি পরীক্ষা হবে বলে পুলিশ জানায়। এ বিষয়ে তিতুদহ ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ এএসআই আলমগীর হোসেন বলেন, ধর্ষিতার পরিবারকে আইনি পরামর্শ দেয়া হয়েছে। মামলা হলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা দিয়েছে গা ঢাকা। অপরদিকে স্থানীয়দের কেউ কেউ বলেছেন, এতোটুকু একটি মেয়েকে তিনজন মিলে ধর্ষণ করলে ধর্ষিতার শাররীক অবস্থা অনেক খারাপ হতে পারতো। বিষয়টি পুলিশ গভীরভাবে ক্ষতিয়ে দেখে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে এমনটায় মনে করছে সচেতন মহল।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *