চুয়াডাঙ্গার খাড়াগোদা-আন্দুলবাড়িয়া সড়কের মূল্যবান গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে চোরেরা

স্টাফ রিপোর্টার: প্রতিরাতেই স্থনীয় কতিপয় অসাধু প্রভাবশালীদের সহতায় রাতের আঁধারে খাড়াগোদা-আন্দুলবাড়িয়া পাকা সড়কের দু ধারের মূল্যবান গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে সংঘবদ্ধ চোরচক্র।

এলাকাবাসীর অভিযোগে জানা গেছে, ২০০২ সালে চুয়াডাঙ্গা এলজিইডি নিজস্ব অর্থায়নে সদর উপজেলার তিতুদহ ইউনিয়নের খাড়াগোদা-আন্দুলবাড়িয়া পাকা সড়কের দু ধারে শিশু, ইপিলইপিল, বাবলা, কড়ুইসহ বিভিন্ন জাতের বনজ গাছ লাগায়। বর্তমানে গাছগুলো বেশ মোটা ও সারি হয়েছে। কিন্তু রাতের আঁধারে স্থানীয় কতিপয় অসাধু প্রভাবশালী ব্যক্তির সহায়তায় সংঘবদ্ধ চোরচক্র ওই রাস্তার দু ধারের মূল্যবান গাছগুলো কেটে নিয়ে যাচ্ছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় দায়িত্বশীল ব্যক্তি জানান, গহেরপুর গ্রামের তাহাজ উদ্দিনের ছেলে শহিদুল ও তার ভাই আতিয়ার, একই গ্রামের রাজ্জাক ও তার ভায়রা ইস্রাফিলের নেতৃত্বে ওই গাছগুলো কেটে নিয়ে যাচ্ছে। আর সকাল হতেই গহেরপুর গ্রামের শহিদুল মোল্লা ওই গাছের গুঁড়িগুলো তুলে নিয়ে স্থানীয় অহেদের ইটভাটায় বিক্রি করছে। রাতের আঁধারে গাছকাটাচক্র এবং দিনের বেলায় গুঁড়িতোলা এবং যে ইটভাটায় বিক্রি হচ্ছে এর মধ্যে একটি যোগসূত্র আছে বলে অনেকেই মন্তব্য করছেন। চোরচক্ররা শক্তিশালী হওয়ায় স্থানীয় লোকজন দেখেও ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না। বিষয়টির প্রতি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নজর দেবে বলে সচেতন এলাকাবাসী মনে করছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.