চুয়াডাঙ্গার ক্ষুদ্রাদেহী লিজনা ডাক্তার হবার বাসনায় দিচ্ছে জেএসসি পরীক্ষা

হাজারো প্রতিকুলতা দমিয়ে রাখতে পারেনা অদম্য ইচ্ছা শক্তিকে

 

নজরুল ইসলাম/খাইরুজ্জামান সেতু: পৃথিবীতে মানুষ আসে বিভিন্ন অববয়ে। কেউ আসে অপরূপ রূপের অধিকারী হয়ে, কেউ আসে কুৎসিত চেহারা নিয়ে, আবার কেউ বিধাতার খেয়ালে পৃথিবীতে আসে ক্ষুদ্রাকৃতির শরীর নিয়ে। যে যেভাবেই পৃথিবীতে আসুক না কেন সবাই মানুষ। কেউ ভালোবাসা পায়, কেউবা পায় ধিক্কার, মানুষ হয়ে আবার কেউ হয় মানুষের হাসির খোরাক। এমনই একজন চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার তালতলা শ্মশানপাড়ার ক্ষুদ্রাদেহী লিজনা। সে হাজারো প্রতিকূলতা, সামাজিক প্রতিবন্ধকতা জয় করে উচ্চশিক্ষা অর্জন করে ডাক্তার হতে চায়। আর সে লক্ষ্যেই ডাক্তার হবার স্বপ্নে জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। গতকাল শুক্রবার ছিলো জেএসসি বাংলা প্রথম পত্রের পরীক্ষা। চুয়াডাঙ্গা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান ফটক দিয়ে বাঁ হাতে ফাইল নিয়ে স্বচ্ছন্দে হাসিখুশি মন নিয়ে অকুতোভয়ে কক্ষের দিকে গুটিগুটি পায়ে এগিয়ে যাচ্ছিলো। কৌতুহলী অনেকেরই জিজ্ঞাসা সে কি পরীক্ষার্থী নাকি দেখতে এসেছে পরীক্ষা। কাছে গিয়ে জিজ্ঞাসা করতেই জানায় সে জেএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে। নাম লিজনা, পিতার নাম লাটিম, বাড়ি চুয়াডাঙ্গা পৌর শহরের তালতলা শ্মশানপাড়ায়। ২ বোন ১ ভাইয়ের মধ্যে সে সকলের বড়। পরীক্ষা দিতে ভালোই লাগছে। লেখা পড়া শিখে সে ডাক্তার হতে চায়। প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্ত করেছে মতিয়ার রহমান প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে। জেএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে হাজরাহাটি-তালতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে। জীবন সংগ্রামে টিকে থাকতে অধিকাংশ মানুষকেই প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে হয় প্রতিনিয়ত। তেমনি নানা প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে সংগ্রাম করে জয়ী হতে চায় লিজনা। সমাজে এদেরকে উপহাসের পাত্র না ভেবে সর্বক্ষেত্রে এদের সহযোগিতা করা প্রয়োজন। যাতে লিজনারা সমাজের বোঝা না হয়ে নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে হতে পারে দশজনের একজন। প্রতিভাকে জাগিয়ে তুলতে পারলেই জীবনে সফলতা আসবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *