চুয়াডাঙ্গার অপ্রাপ্ত বয়সের প্রেমিক-প্রেমিকা আদালতের মাধ্যমে অভিভাবকদের হেফাজতে

 

স্টাফ রিপোর্টার: দর্শনা দক্ষিণচাঁদপুরের বিল্লাল ক্রসফায়ারে নিহত হওয়ার বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় রুজু করা মামলাটির অগ্রগতি জানতে চেয়েছেন আদালত। পুলিশের দর্শনা আইসি ইনচার্জ এসআই মিজানুর রহমানকে অভিযুক্ত করে আদালতে হত্যার পিটিশ মামলা দায়ের করলে আদালত এ আদেশ দেন।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদার দর্শনা দক্ষিণচাঁদপুরের আতিয়ার রহমানের ছেলে বিল্লাল হোসেন গত ১১ আগস্ট রাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে প্রাণ হারায়। চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের বেগমপুর ইউনিয়নের উজলপুর সড়কের ধার থেকে গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়। একই সাথে উদ্ধার করা হয় আগ্নেয়াস্ত্র। পুলিশ জানায়, সেখানে বসে বিল্লাল তার গ্যাং নিয়ে গোপন বৈঠক করছিলো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দর্শনা আইসি ইনচার্জ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সেখানে অভিযান শুরু করলে গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটে। পরে উদ্ধার করা হয় বিল্লালের লাশ। পুলিশের তরফে এ দাবি করা হলেও বিল্লালের পিতা আদালতে হত্যার অভিযোগ তুলে বলেছেন, বিল্লালের নিকট ৩ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে তা না পেয়ে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে গুলি করে তাকে হত্যা করা হয়েছে। মামলায় বিল্লালের স্ত্রী আফিরন সুলতানা পিলুকে স্বাক্ষী করা হয়েছে।    অপরদিকে জানা গেছে, নিহত বিল্লাল একাধিক মামলার আসামি। তার বিরুদ্ধে তার এলাকার সাবেক এক পৌর কাউন্সিলরের ওপর বোমা নিক্ষেপসহ বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে বলেও জানায় পুলিশ।

গত ২০ আগস্ট চুয়াডাঙ্গার আমলি আদালত (খ) অঞ্চলে এ আবেদন করা হয়। আদালত বিল্লাল নিহত হওয়ার বিষয়ে পুলিশের দায়ের করা মামলাটির অগ্রগতি জানতে চেয়ে আগামী ৭ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন। ওই মামলাটির তদন্ত করছেন বেগমপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ।

Leave a comment

Your email address will not be published.