চুরি মামলায় দু দিনের রিমান্ড শেষে সানকে আজ আদালতে নিচ্ছে পুলিশ

 

স্টাফ রিপোর্টার: আলোচিত সান চুরির কথা সরাসরি স্বীকার করেনি। তবে সে জিনতলাপাড়ার সোপানের বন্ধু বলে পরিচয় দিয়েছে। দু দিনের রিমান্ডে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে সে এর বাইরে উল্লেখযোগ্য তথ্য দিয়েছে কি-না তা নিশ্চিত করে জানা সম্ভব হয়নি। পুলিশ তার স্বীকারোক্তিতে তেমন কোনো চোরাই মালামালও উদ্ধার করতে পারেনি।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ অবশ্য বলেছে, চুয়াডাঙ্গা দৌলাতদিয়াড় দক্ষিণপাড়ার হেলাল উদ্দীনের ছেলে সানকে দু দিনের রিমান্ডে নিয়ে গত পরশু থেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। আজ মঙ্গলবার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে। রিমান্ডে থাকাকালে সে বেশ কিছু তথ্য দিয়েছে। প্রয়োজনে ওকে আবারও রিমান্ডের আবেদন জানানো হতে পারে।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরে সম্প্রতি একের পর এক গ্রিল কেটে, তালা ভেঙে চুরি সংঘঠিত হয়। ঈদের পূর্বরাতে চুয়াডাঙ্গা পোস্ট অফিসপাড়ার পাশাপাশি দুটি ফ্লাটে চুরি হয়। ঈদের পর মামলা হলে সদর থানা পুলিশ চোরচক্র ধরতে অভিযান শুরু করে। জিনতলাপাড়ার সোপান ও দৌলাতদিয়াড় দক্ষিণপাড়ার সাইফুলকে গ্রেফতার করে। এদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বেশ কিছু চোরাই মালামাল উদ্ধার হয়। সোপান চুরির কথা স্বীকার করে সে তার সহযোগীদের নাম বলে। তারই দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পরবর্তীতে গ্রেফতার করা হয় সানকে। নেয়া হয় রিমান্ডে। সান এলাকায় নানা অভিযোগে অভিযুক্ত। তার পিতা হেলালের বিরুদ্ধে রয়েছে একাধিক মাদক মামলা।

Leave a comment

Your email address will not be published.