গাজায়মৃতের সংখ্যা শতাধিক ছাড়িয়েছে: যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব

 

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ৫দিন ধরে চলা বিমান হামলায় ফিলিস্তিনির গাজায় মৃতের সংখ্যা শতাধিকছাড়িয়েছে। এখনো ইসরাইলি হামলা অব্যাহত রয়েছে। অবিলম্বে ইসরাইল ফিলিস্তিনিদুপক্ষকেই যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন।জাতিসংঘনিরাপত্তা পরিষদের এক জরুরি সভায় বান কি মুন বলেন, অত্যধিক শক্তি প্রয়োগঅগ্রহণযোগ্য যার চরম খেসারত দিতে হচ্ছে বেসামরিক নাগরিকদের। অন্যদিকেমার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা যুদ্ধবিরতিতে মধ্যস্থতার প্রস্তাবদিয়েছেন। কিন্তু ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতাইয়াহু বরং হামলাবাড়ানোর হুমকি দিয়েছেন।ফিলিস্তিনি গাযায় ইসরাইলিহামলা অব্যাহত রয়েছে। সেখানকার দৈনন্দিন জীবনের চিত্র পাল্টে যেন একধরনেরভীতিকর পরিবেশ বিরাজ করছে। ভয়ে ঘর থেকে বের হচ্ছেন না কেউই। রাস্তারবেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে শুধু অ্যাম্বুলেন্স। দোকানপাট বেশিরভাগইবিধ্বস্ত।পরিস্থিতি নিয়ে আলাপে নিরাপত্তা পরিষদে জরুরি বৈঠক ডেকেছেনজাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন। তিনি বলছেন, ইজরায়েল ফিলিস্তিনের মধ্যে আরেকটিযুদ্ধ বহনের ক্ষমতা মধ্যপ্রাচ্যের নেই। তিনি অবিলম্বে যুদ্ধ বিরতির আহ্বানজানিয়েছেন দুপক্ষকেই।কিন্তু এর মাঝেই ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিননেতানইয়াহু হুশিয়ার করে দিয়ে বলেছেন, গাজায় হামলা আরো বাড়বে। তিনি বলছেন, পরিকল্পনা মতো হামলা এগুচ্ছে। হামাসের কয়েকটি ঘাঁটিতে বেশ শক্ত হামলাচালানো হয়েছে। হামাসেরওপর এ হামলার প্রকোপ আরো বাড়বে।
ইসরাইলেরকর্তৃপক্ষ যেমনটা বলছে হামলার লক্ষবস্তু হামাসের সদস্যরা কিন্তু ফিলিস্তিনিকর্তৃপক্ষ বলছে এ হামলায় বেসামরিক নাগরিকই বরং আক্রান্ত হচ্ছেন।ফিলিস্তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রী রিয়াদ আল মালিকি এ হামলাকে একটি সহিংসতারক্যাম্পেইন বলে আখ্যা দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, তা চলতে থাকলে আরো অনেক প্রাণবিনষ্ট হবে। ভারি অস্ত্র দিয়ে ৮০০র বেশি লক্ষবস্তুতে হামলার চালানো হয়েছেএবং তা মূলত বেসামরিক ঘরবাড়ি ও মসজিদ বলে তিনি জানাচ্ছেন।ওদিকে একটিযুদ্ধ বিরতিতে মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাকওবামা। তিনি ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীকে টেলিফোন করে সংঘর্ষ বন্ধ করে শান্তিফিরিয়ে আনার আহ্বান জানিয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *