গাংনীর নিত্যান্দপুরে ডিস ব্যবসায় বাধা

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনীর চিৎলা গ্রামের ডিস ব্যবসায়ী আশরাফুলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র থামেনি। ব্যবসার দ্বন্দের জের ধরে আশরাফুল ইসলাম হাতুড়িপেটার শিকার হয়েছেন। এখন তার ব্যবসায় বিভিন্নভাবে বাধা দেয়া হচ্ছে। মিথ্যা মামলায় হয়রানির ষড়যন্ত্র চলছে। এমন অভিযোগ করে সুবিচার পেতে সংশ্লিষ্ঠদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন আশরাফুল ইসলাম।

স্থানীয় ও ভুক্তভোগীসূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি ডিস ব্যবসার জের ধরে আশরাফুল ইসলাম ও তার সঙ্গীয় দুজনকে হাতুড়িপেটা করেন নিত্যান্দপুর গ্রামের অরুন মণ্ডল ও তার দুই ভাই। আশরাফুলের দায়ের করা মামলায় পুলিশ দুজনকে গ্রেফতার করে। ওই মামলা থেকে বাঁচতে অরুন ও বিকাশ মণ্ডলের পরিবার ভাঙচুরের নাটক সাজায় বলে অভিযোগ রয়েছে।

আশরাফুল ইসলাম বলেন, ঘটনার দিন তার এক কর্মচারী বিকাশ মণ্ডলের বাড়ির পেছনে কাজ করতে গিয়েছিলেন। এর সূত্র ধরে সন্ধ্যায় বিকাশ মণ্ডলের পরিবার ভাঙচুরের নাটক সাজায় এবং থানায় মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেন। এলাকার একটি কুচক্রি মহলের ইন্ধনে তারা ভাঙচুরের নাটক সাজিয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এদিকে হামলার ঘটনার পর থেকেই নিত্যানন্দপুর গ্রামে ঠিকমত কাজ করতে পারছেন না আশরাফুল ও তার ক্যাবল নেটওয়ার্কের লোকজন। ওই গ্রামে গেলে আবার কোনো ষড়যন্ত্রের আশঙ্কায় ডিসের মাসিক বিল উত্তোলন ও লাইন রক্ষনাবেক্ষণ করতে যেতে পারছেন না।

আশরাফুল ইসলাম বলেন, বিকাশ মণ্ডলের বাড়িতে যখন ভাঙচুরের নাটকের সময় বলা হচ্ছে- তখন তিনি গ্রামের পার্শ্ববর্তী জুগিন্দা বাজারে পল্লি চিকিৎসক সাধনের দোকানে অবস্থান করছিলেন। কর্মচারী কাওছার ও তার ভাই জামান জুগিন্দা বাজারে ছিলেন। অথচ তারা অভিযোগে বলেছে আমরা ভাঙচুর করেছি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *