গাংনীর কুঞ্জনগরের জিয়ারুলের দাফন : মুনছুর আলীকে নিয়ে গুঞ্জন থামেনি

 

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনী উপজেলার কুঞ্জনগর গ্রামের জিয়ারুল ইসলামের (৩২) দাফন সম্পন হয়েছে। আত্মহত্যার বিষয়টি পুলিশের কাছে প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হলেও স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিক মুনছুর আলী তাকে হত্যা করেছে কি-না তা নিয়ে গুঞ্জন থামেনি। গতকাল বৃহস্পতিবার গাংনী থানা পুলিশ লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করেই পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাছুদুল আলম জানিয়েছেন, বিষপানে আত্মহত্যার বিষয়টি প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে। কোনো পক্ষ থেকেই থানায় লিখিত কোনো অভিযোগ করেনি। বিধায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। তবে পুলিশের সন্দেহের বাইরে নেই মুনছুর আলী। তার ভাগ্য নির্ভর করছে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের ওপরে। সেখানে হত্যার কোনো আলামত পেলে মুনছুর আলী আটকে যেতে পারেন বলে জানিয়েছে গাংনী থানা পুলিশের একটি সূত্র। জিয়ারুল ইসলাম আত্মহত্যা করেছে বলে পরিবারের লোকজন মনে করছে। তবে মুনছুর আলীর কারণেই সে আত্মহত্যা করেছে বিধায় এ মৃত্যুর দায় কিংবা পরকীয়া সম্পর্কের দায়ও এড়াতে পারেন না মুনছুর আলী। এমনই মন্তব্য করলেন এলাকার মানুষ। এ নিয়ে এলাকায় এখনও নানা গুঞ্জন চলছে। ঘটনার রাত থেকেই আত্মগোপন করেছেন মুনছুর।

উল্লেখ্য, কুঞ্জনগর গ্রামের জিয়ারুল ইসলামের স্ত্রীর সাথে গ্রামের মুনছুর আলীর পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে গ্রামে সালিস হয়। সেখানে মুনছুর আলীকে পেটানো হয়। পরদিন বিকেলে গ্রামের মাঠ থেকে মুনছুর আলীর লাশ উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *