খুলনায় সেপটিক ট্যাংকে নিহত চার

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনায় সেপটিক ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসে চারজন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় নগরীর আলীশান মোড়ে একটি নির্মাণাধীন ভবনের আন্ডার গ্রাউন্ড সেপটিক ট্যাংকে কাজ করার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।  এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। নিহতরা হলেন- শ্রমিক ইমরান (২০), নজরুল (২২), রমজান (৩০) ও স্থানীয় উদ্ধারকারী শাওন (২৫)। স্থানীয়রা জানান, সমীর নামের এক ব্যক্তির নির্মাণাধীন ১৬ তলা ভবনের দুই তলার কাজ চলছে। এ ভবনের আন্ডার গ্রাউন্ড সেপটিক ট্যাংকে কাজ করার সময় কয়েকজন শ্রমিক গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হন।

পরে সেখান থেকে চারজনকে ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার করে। এর মধ্যে দু’জন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান শ্রমিক রমজান ও স্থানীয় উদ্ধারকারী যুবক শাওন। ফায়ার সার্ভিসের খুলনা সদর স্টেশন অফিসার মো. মোজাহার জানান, ফায়ার সার্ভিস খুলনার সহকারী পরিচালক বদরুল আলমের নেতৃত্বে শ্রমিকদের উদ্ধার করা হয়েছে।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত ডা. জুয়েল জানান, হাসপাতালে প্রথমে যে দু’জনকে আনা হয়েছিল তারা মৃত ছিলেন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাকি দু’জনও মারা যান। এদিকে শ্রমিক মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ায় দুপুর দেড়টা থেকে ২টা পর্যন্ত মৃত শ্রমিকদের আত্মীয়-স্বজন ও শ্রমিকরা নির্মাণাধীন ভবনে ভাঙচুর চালানোর চেষ্টা করলে সেখানে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এসময় এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন দেখা গেছে।

এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য সোনাডাঙ্গা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান বলেন,  নির্মাণাধীন ওই ভবনের সেপটিক ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত হয়েই তারা মারা গেছেন। তবে কেউ কেউ বলছেন, মঙ্গলবার ওই ট্যাংক থেকে মোটর দিয়ে পানি উঠানোর পর মোটরের সুইচ বন্ধ করা হয়নি। পরে বৃষ্টির পানিতে ট্যাংটি পরিপূর্ণ হয়ে পড়ায় পানি বিদ্যুতায়িত হয়। ওই বিদ্যুতায়িত পানির সংস্পর্শে তাদের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের একটি সূত্র জানায়, এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *