কে জানাবে সিরিয়ার প্রকৃত চিত্র?

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ইরাক-আফগানিস্তানের মতো সম্ভবত আরেকটি যুদ্ধের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বিশ্ববাসী। বরাবরের মতো এবারও আলোচনায় মিডিয়া। প্রশ্ন উঠেছে, যুক্তরাষ্ট্র যদি সিরিয়ায় হামলা চালায়, তবে দামেস্ক থেকে প্রতিবেদন পাঠাবেন কে? কারণ খুব অল্প সংখ্যক মিডিয়া কর্মীদের সেখানে প্রবেশাধিকার রয়েছে। আর মিডিয়াকর্মীর সংখ্যা অপ্রতুল হলে প্রকৃত যুদ্ধাবস্থার সঠিক চিত্র বিশ্ববাসীর কাছে পৌঁছানো নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়। এ নিয়ে গতকাল বুধবার বিশ্বের জনপ্রিয় অনলাইন হাফিংটন পোস্ট ‘সিরিয়া মাস্ট বি রিপোর্টেড বাট বাই হু’ শীর্ষক শিরোনামে একটি প্রতিবেদন ছাপে। প্রতিবেদনে বলা হয়, ঘটনাস্থল থেকে সিরিয়ার প্রকৃত চিত্রধারণ সত্যিই দুষ্কর হয়ে পড়েছে। কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্ট নামের একটি সংগঠন জানিয়েছে, ২০১২ সালে সিরিয়ায় ২৮ জন সংবাদিক প্রাণ হারান। আর অপহরণ দেশটিতে একটি সাধারণ ঘটনায় পরিণত হয়েছে। আল-কায়েদার সাথে সংযুক্ত বিদ্রোহীদের হাতে অপহরণের ভয় নিত্যদিন সাংবদিকদের তাড়া করে ফেরে। এ বিষয়ে একটি সংবাদমাধ্যম গত শুক্রবার এক মার্কিন আলোকচিত্রীকে অপহরণ বিষয়ক একটি প্রতিবেদন ছাপে। ওই আলোকচিত্রী সাত বছরের বন্দিদশা থেকে কোনোমতে পালিয়ে আসতে সক্ষম হন। এনবিসির সংবাদকর্মী রিচার্ড এনজেলকে অপহরণ করা হয়েছিলো। ডিসেম্বরে মুক্তি পেয়ে তিনি তুরস্ক সীমান্ত দিয়ে আবার সিরিয়ায় প্রবেশ করেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *