কেরুজ বিদ্যালয়ের অভিযুক্ত শিক্ষার্থীদের ক্ষমা : সন্তানদের সুধরে নেয়ার অঙ্গীকার করলেন অভিভাবকরা

দর্শনা অফিস: কেরুজ উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিযুক্ত শিক্ষার্থীদের এবারের মতো ক্ষমা করলেন বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। অভিভাবকদের উপস্থিতিতে অভিযুক্তদের ক্ষমা করে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ১০টার দিকে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের আহ্বানে অভিযুক্ত শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা আসেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুলতান মাহমুদ জোয়ার্দ্দার স্বাক্ষরিত প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অভিভাবকরা তাদের সন্তানের পক্ষ থেকে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। সেই সাথে কর্তৃপক্ষকে বড় ধরনের সিদ্ধান্ত নেয়া থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানান। অভিভাবকদের অনুরোধক্রমে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ প্রথমবারের মতো তাদের ক্ষমা করে দিয়ে সুন্দর ও সুষ্ঠু পরিবেশে পড়ালেখা করার পরামর্শ দেয়।

উল্লেখ্য, অভিযোগ ওঠেগত বুধবার বিদ্যালয় চলাকালীন সময় বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থী ইতু খাতুন, অন্য, লাবণ্য, তুশি, রাকিব, তানাজ, নাবিল, পুতুল, হাসি, এ্যানি, সুমাইয়া, হাসিবুল নবম শ্রেণির ফারিয়া এবং বৃষ্টি বিদ্যালয় আঙিনার বাইরের কফি হাউজ, বেকারিসহ বিভিন্ন স্থানে আড্ডা দেয়। এছাড়া কেউ কেউ নিয়মিত ক্লাস না করা, হোয়াইট বোর্ড, বেঞ্চ ভাঙা, তাসখেলায় মেতে বিদ্যালয়ের নিয়ম বহিভূর্ত কার্যকলাপ করেছে। এ অভিযোগে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অভিযুক্ত শিক্ষার্থীদের ক্লাসরুমে প্রবেশ করতে না দিয়ে যার যার বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। সেই সাথে গতকাল শনিবার সকাল ১০টার দিকে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে তাদের অভিভাবককে সাথে নিয়ে আসতে বলা হয়েছিলো। নাম প্রকাশ্যে অনুচ্ছিক কোনো কোনো অভিভাবকের অভিযোগে জানা গেছে, বিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষক কোচিং বাণিজ্যে মেতে উঠেছেন। অভিযুক্ত শিক্ষার্থীরা ওই সকল শিক্ষকের কোচিঙে ভর্তি না হওয়ায় কারো কারো বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ তোলা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *