কুড়ুলগাছি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হাফিজুরকে নিয়ে নানামুখি গুঞ্জন ॥ সংবাদ সম্মেলন

কুড়ুলগাছি প্রতিনিধি: দামুড়হুদার কুড়ুলগাছি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হাফিজুর রহমান ও কুড়ুলগাছি চণ্ডিপুরের রাবেয়াকে নিয়ে কুড়ুলগাছিতে নানামুখি গুঞ্জন চলছে। উভয়পক্ষেই সংবাদ সম্মেলন করেছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে কুড়লগাছি বাজারে লোকজন দোকান খোলার সময় কে বা কারা একটি হাতের লেখা চিঠিতে শিক্ষক হাফিজুর ও রাবেয়া নামে এক মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দেহভোগ ও অন্তঃসত্ত্বা এই ধরনের চিঠি বাজারে বিভিন্ন জায়গায় সকালে পড়ে থাকতে দেখা যায়। গতকালই মঙ্গলবার বিকেলে শিক্ষক হাফিজুর রহমান ও মেয়ে রাবেয়া উভয়পক্ষ একই সাথে কুড়ুলগাছি প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে। এতে শিক্ষক হাফিজুর রহমান লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমি আমি দীর্ঘ নয় বছর সুনামের সাথে চাকরি করে আসছি। আমার মানসম্মান ক্ষুণœ করার জন্য একটি মহল আমাকে সমাজের হেয় প্রতিপন্ন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এদিকে মেয়ে রাবেয়া তার লিখিত বক্তব্য বলেন, আমি একাদশ শ্রেণির ছাত্রী। আমি মাদরাসা থেকে দাখিল পাস করে কলেজে ভর্তি হই। আমি হাফিজুর রহমান বলে কোনো শিক্ষককে চিনি না। আমি বিবাহিত। আমার স্বামী আছে। আমাকে নিয়ে কিছু লোক আমার বিরুদ্ধে উল্টোপাল্টা লেখালেখি করেছে। আমার মানসম্মান ক্ষুণ্ণ করেছে। এই চিঠি কে বা কারা ছড়িয়েছে তা আমার পরিবারের লোক খতিয়ে দেখছেন। যদি জানতে পারি তার বিরুদ্ধে আমি মানহানির মামলা করবো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *