কীটনাশক বিক্রেতার প্ররোচনায় ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ারের চেনজার বিষ দিয়ে দেড় বিঘা জমির কচু বিনষ্ট

 

সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি: কীটনাশক বিক্রেতার প্ররোচনায় ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার কোং চেনজার বিষ দিয়ে দেড় বিঘা জমির কচুক্ষেত সম্পূর্ণ বিনষ্ট হয়ে গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের শাহাপুর পূর্বপাড়ার মাঠে।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের শাহাপুর গ্রামের ডাক্তারপাড়ার আবুল হোসেনের ছেলে কৃষক তাজুল ইসলাম দেড় বিঘা জমিতে কুচুর চাষ করেন। এমন অবস্থায় জমিতে ঘাস দেখা দিলে সরোজগঞ্জ বাজারের কীটনাশক ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দিনের নিকট পরমর্শ নিতে গেলে তিনি ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার ইমপোট অ্যান্ড এক্সপোট কোং’র চেনজার বিষ সারের সাথে মিশিয়ে কচুক্ষেতে দিলে ঘাস হবে না কচু ও মরবেনা বলে জানান।

কৃষক তাজুল ইসলাম বলেন, তার কথা মতো কচুক্ষেতে চেনজার বিষ দিয়ে আমার দেড় বিঘা জমির কচুক্ষেত নষ্ট হয়ে গেছে। তিনি আরও বলেন, এই বিষয়ে আমি কীটনাশক ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দিনকে জানাতে গেলে তিনি আমার সাথে দুর্ব্যবহার করে তাড়িয়ে দেন। মাঠে থাকা একাধি কৃষকরা জানান, ১ বিঘা জমিতে কচু চাষ করতে বিজসহ ৩০ হাজার টাকা মতো খরচ হয়। ভাল মানের কচু হলে ৮০ থেকে ১শ মণ ফলন পাওয়া যায়। যার বাজার মূল্য ৮০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা। কচু নষ্ট হওয়ায় কৃষক তাজুল ক্ষতির মুখে পড়বে। এই বিষয়ে কুতুবপুর ইউনিয়নের শাহাপুর ব্লাকের উপসহকারী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, চেনজার বিষ ধানের জমির ঘাস মারার জন্য ব্যবহার করা হয়। কচুর জমিতে ব্যবহার করা যায় কি-না আমার জানা নেই।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *