কালীগঞ্জে হত্যাকাণ্ডের জেরে চলছে বাড়িঘর ভাঙচুর

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার সিমলা-রোকনপুর ইউনিয়নের মনোহরপুর গ্রামে একটি হত্যাকাণ্ডকে পুঁজি করে চলছে বাড়িঘর ভাঙচুর। জীবননাশের ভয়ে বাড়ি ছাড়া ওই গ্রামের বেশ কয়েকটি পরিবার।

জানা গেছে, সম্প্রতি আধিপত্য বিস্তারের জেরে গত ১৫ মার্চ মনোহরপুর গ্রামের যুবলীগ নেতা বিপুল মণ্ডল প্রতিপক্ষের হাতে নিহত হয়। এ ঘটনার পর থেকে ওই গ্রামের মোহাম্মদ আলী, সামছুল হক, তহিদুল ইসলামসহ কয়েকজনের নামে মিথ্যা মামলা করা হয়। হত্যাকাণ্ডকে পুঁজি করে মামলা দায়েরের পর কালীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতার নেতৃত্বে হাসান, আরিফুল, কালো শহিদুল, আকরাম, জাহাঙ্গীর, নাজমুলসহ আরও কয়েক জন বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে। তাদের ভয়ে ৩টি পরিবার এখন ভিটেমাটি ছাড়া। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, হত্যাকাণ্ডের আগে থেকে তারা কেউ বাড়িতে ছিলেন না। তবুও পূর্বশুত্রুতার জের ধরে তাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। শুধু মিথ্যা মামলায় দেয়নি, তাদের বাড়িঘর ভাঙচুর করে লুটপাট করা হয়েছে। কালীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ও দলীয় ক্যাডারদের ভয়ে তারা বাড়ি ফিরতে পারছেন না বলে অভিযোগ করেছেন। তাদের দাবি এই হত্যাকাণ্ডের সাথে যারা জড়িত তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হোক। আর যাদের নামে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে তাদের মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়া হোক। এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, হত্যার ঘটনার পরপরই একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছিলো বলে শুনেছি। তবে এ ঘটনায় তারা কেউ আমার কাছে অভিযোগ করেনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *