কাজ নেই তাই সাইকেল চুরি : সরল স্বীকারোক্তি মদনার আতিয়ারের

 

স্টাফ রিপোর্টার: লোকটিকে দেখে ভদ্র মনে হলেও সাইকেল চুরির অভিযোগে ধরা পড়লো। এক্কেবারে হাতেনাতে ধরার ফলে তাকে উত্তমমধ্যম দিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে নেয়া হয়। পুলিশ এ চোরকে নিতে অস্বীকার জানায়। অগত্যা তার বুকে সাইকেলচোর লিখে ছেড়ে দেয়া হয়। তবে সাধারণ মানুষের কৌতূহল ছিলো তাকে নিয়ে। কারণ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে সে সরল স্বীকারোক্তি দেয় সাধারণ মানুষের কাছে। সে জানায়, চুরি করা ছাড়া তার কোনো উপায় ছিলো না। মেয়ে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী। আর ছেলে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র। তাদের লেখাপড়ার খরচসহ সংসার চালানোর জন্য একটি রাইচমিলে কাজ করতো সে। চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে চাকরি যেমন গিয়েছে, তেমনি অন্য কেউ কাজেও নিচ্ছে না। এ অবস্থায় গতকাল শনিবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল রোড থেকে একটি বাইসাইকেল চুরির সময় সে হাতেনাতে ধরা পড়ে। অভিযুক্ত চোর নিজেকে আতিয়ার (৩৮) বলে পরিচয় দিয়ে বলেছে তার বাড়ি দামুড়হুদার মদনা বাজারপাড়ায়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *