কলগার্লদের নিয়ে বারে আসেন বিধায়ক

  মাথাভাঙ্গা অনলাইন : গোয়ার ডান্সবার থেকে ধৃত সমাজবাদী পার্টির বিধায়ক মহেন্দ্র সিংয়ের ব্যাপারে তদন্তে নেমে চাঞ্চল্যকর তথ্য পেল পুলিশ। গোয়ার পানাজির যে বার থেকে উত্তরপ্রদেশের সিতাপুরের চারবারের বিধায়ককে ধরা হয়েছে, সেই বারে কাজ করা মেয়েদের নিয়ে আসা হতো দেশের বিভিন্নপ্রান্ত থেকে।
সেই রাতে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়া মহিলারা অবশ্য গোয়া থেকে এসেছিলেন। তাদের নিয়ে আসেন বিধায়ক স্বয়ং। সেই রাতে কলগার্লদের সঙ্গে নিয়ে বারে এসেছিলেন সেই সপা বিধায়ক। আগের রাতে সেই কলগার্লদের সঙ্গে স্থানীয় এক হোটেলে তিনিও রাতও কাটান বলে জানা গিয়েছে। অনৈতিক কাজ করার অভিযোগ সেপ্টেম্বরের ২ তারিখ পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতে রাখা হবে বিধায়ক মহেন্দ্র সিংকে।

প্রসঙ্গত, গোয়ার ডান্সবারে মাঝে মাঝেই পুলিশি অভিযান চলে। বারের মধ্যে দেহ ব্যবসায় জড়িয়ে থাকার দায়ে গ্রেফতারও করা হয়। মঙ্গলবার পানাজির এক ডান্সবারে রাতে এমনই এরকম পুলিশি অভিযানে যিনি ধরা পড়লেন তিনি একজন বিধায়ক। বিধানসভায় শপথ নিয়ে যিনি বলেছিলেন সুশাসন আনব, আইনশৃঙ্খলা উন্নতি করব, সমাজের উন্নয়ন করব, তিনিই একেবারে ডান্সবার থেকে মুখ ঢেকে হাতকড়া পরে বেরোলেন।

গ্রেফতার হওয়া সেই বিধায়ক সিতাপুর কেন্দ্রের। একবার নয় বিধায়কবাবু চারবার বিধানসভার ভোটে জিতেছেন। তার নাম মহেন্দ্র সিং। ৫৫ বছরের বিধায়কবাবুকে দেহব্যবসা বিরোধী আইন গ্রেফতার করা হয়েছে। গোয়ার পুলিশের পক্ষ থেকে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভার স্পিকারকে বিধায়ক গ্রেফতারের খবরও জানানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, মহেন্দ্র সিংয়ের দলই এখন উত্তরপ্রদেশে ক্ষমতায় আছে।

সমাজবাদী পার্টির ওই বিধায়ক ছাড়াও ডান্সবারে পুলিশি অভিযান চালিয়ে আরো পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়। সঙ্গে ছ জন মহিলাও ধরা হয়। সেই ছ জনের বাড়ি পাঞ্জাব, দিল্লি, মুম্বাই, উত্তরপ্রদেশ ও ছত্তিশগড়ে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *