এবার আমেরিকাকে রাশিয়া ও ইরানের পাল্টা হুঁশিযারী

মাথাভাঙ্গা অনলাইন :  সিরিয়ায় হামলা হলে মধ্যপ্রাচ্য পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি হবে বলে হুঁশিয়ার করেছে দেশটির মিত্র শক্তি ইরান ও রাশিয়া। আমেরিকান পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি সিরিয়ায় হামলার পূর্বাভাস দেয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এই হুঁশিয়ারী জানিয়েছে দেশ দুইটি।  
মঙ্গলবার আলজাজিরা ও রেডিও তেহরান এই খবর জানায়।

ইরান জানিয়েছে, সিরিয়ায় হামলা হলে এর প্রথম শিকার হবে ইসরাইল।

ইরানের জাতীয় সংসদের আন্তর্জাতিক বিষয়ক মহাপরিচালক হোসেইন শাইখুল ইসলাম এ কথা জানান। তিনি বলেন,“সিরিয়ার ওপর আমেরিকান হামলার আশঙ্কা খুবই কম। তারপরও যদি দেশটি সামরিক আগ্রাসন চালিয়েই বসে তাহলে সিরিয়ার প্রথম আঘাতের শিকার হবে ইসরাইল। কারণ সিরিয়ার সেনাবাহিনী ইসরাইলের বিরুদ্ধে বড় ধরনের অভিযান পরিচালনা করার শক্তি রাখে।”

শায়খুল আরো জানান, ইসরাইল হচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যে আমেরিকান জাতীয় নিরাপত্তার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি জায়গা।

এদিকে সিরিয়ায় হামলা হলে মধ্যপ্রাচ্যে ভয়াবহ বিপর্যয়ের সৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছে রাশিয়া। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আলেকজান্ডার লুকাশেভিচ এক বিবৃতিতে এ কথা জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদকে পাস কাটিয়ে সেনা অভিযানের লক্ষ্যে আবারো ভিত্তিহীন ও বানোয়াট অজুহাত তৈরি করা হলে সিরিয়া এবং এ অঞ্চলের অন্য দেশগুলোর জন্য নতুন দুঃখ-দুর্দশা ডেকে আনবে।”

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, “এ ধরনের তৎপরতা মধ্যপ্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকায় মারাত্মক বিপর্যয় ডেকে আনবে।”

এছাড়া, সিরিয়া ইস্যুতে বাতিল করা আলোচনা আবার শুরুর ওপরও গুরুত্বারোপ করেন লুকাশেভিচ।

গত ২৩ আগস্ট আমেরিকান প্রতিরক্ষামন্ত্রী চাক হেগেল জানিয়েছেন, সিরিয়ায় হামলার জন্য আমেরিকান বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে এবং প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা অনুমতি দিলে তারা যুদ্ধ শুরু করতে পারেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *