একই সংস্থার দু বিমান: ভাইয়ের পর কেড়ে নিলো মেয়েকে

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: একইসংস্থার দুটি বিমান। দুটিই বোয়িং ৭৭৭ জেট। দুটি বিমান বিপর্যয়ই এক কথায়নজিরবিহীন। অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দা কেলিন ম্যানের কাছে মালয়েশীয় বিমানসংস্থার এমএইচ ৩৭০ ও এমএইচ ১৭-র মিল কিন্তু শুধু এটুকুই নয়। প্রথমে ভাইকেনিয়ে উধাও এমএইচ ৩৭০, এরপর মেয়ে ও জামইকে নিয়ে ধ্বংস হলো এমএইচ ১৭।চারমাস আগে মার্চের ৮ তারিখে কুয়ালালামপুর থেকে বেজিঙের পথে উধাও হয়ে গিয়েছিলোমালয়েশীয় বিমান সংস্থার এমএইচ ৩৭০। অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দা কেলিন ম্যানেরভাই আর ভাইয়ের বৌ ছিলেন ওই অভিশপ্ত বিমানে। সেই স্মৃতি ফিকে হওয়ার আগেই এলোদ্বিতীয় আঘাত। শুক্রবার সকালে খবর পেলেন, ইউক্রেনের রুশ সীমান্ত ঘেঁষাডনেৎস্কের গ্রাবোভো গ্রামে যে বিমানটি ভেঙে পড়েছে, তাতে ছিলেন তার সৎ মেয়েও জামাই।কেলিন এ দিন জানান, মার্চ মাসে বন্ধুদের সাথে বিদেশে ছুটিকাটিয়ে স্ত্রী মেরির সাথে এমএইচ ৩৭০-এ উঠেছিলেন তার ভাই রডনি বুরো। তাদেরশেষ খবরটুকু এখনও জানেন না বাড়ির লোকজন। আশায় বুক বাঁধতে ইচ্ছে করলেও ভরসাপান না। আর এখন তো ভেঙে পড়েছেন আরওই। এক মাসের ইউরোপ ভ্রমণ শেষে ফিরছিলেনসৎ মেয়ে মারি ও জামাই অ্যালবার্ট রিজক। কান্নায় বুজে আসা গলায় কোনও মতেবললেন, খবরটা শোনা মাত্র পুরনো মুহূর্তগুলো চোখের সামনে ভেসে এলো। কেউ কিআমাদের ধৈর্য্যের পরীক্ষা নিচ্ছে!নিয়তির এই পরিহাস মানতে পারা কঠিন, এককথায় স্বীকার করছেন বুরো পরিবারের সকলেই। যাদের বিমানে ওঠার মাসুল দিতে হলোপ্রিয়জনদের, সেই মালয়েশীয় বিমান সংস্থার অবশ্য কোনও দোষ দেখছেন না কেয়লিনম্যান। তার কথায়, সংস্থার কোনও গাফিলতি তো এখনও প্রমাণ হয়নি। এ রকম যে হতেপারে সে কথাই বা কে ভেবেছিলো।

Leave a comment

Your email address will not be published.