ইসরায়েলের হুমকিতে পালাচ্ছে গাজার বাসিন্দারা

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর:গাজার রকেট উৎক্ষেপণস্থলগুলোতে ইসরায়েলের নতুন করেহামলার হুমকির মুখে বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে যেতে শুরু করেছে এলাকার হাজারহাজার বাসিন্দা।ইসরায়েলি সেনাবাহিনী জানায়, বিমান হামলার পাশাপাশি হামাসের সম্ভাব্য রকেটউৎক্ষেপণ কেন্দ্রেগুলো ধ্বংস করতে তারা অভিযান শুরু করবে। সে কারণে গাজারকয়েকটি এলাকার বাসিন্দাদেরকে আত্মরক্ষার্থে ঘরবাড়ি ছেড়ে যেতে হবে বলেহুঁশিয়ারি দিয়েছে তারা।ইতোমধ্যে গাজায় ছয়দিনের টানা বিমান হামলায়অন্তত ১৬০ ফিলিস্তিনি নিহত এবং সহস্রাধিক মানুষ আহত হয়েছে বলে ফিলিস্তিনেরস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। হতাহতদের তিন-চতুর্থাংশই বেসামরিক মানুষবলে জাতিসংঘের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।গত শনিবার রাতে বিমান থেকে ছোড়াইসরায়েলের একটি প্রচারপত্রে গাজার বাইত লাহিয়া ও পাশের তিনটি বসতিরলোকজনকে গতকাল রোববার দুপুর ১২টার মধ্যে বাসস্থান ত্যাগ করতে বলা হয়। এতে আরো বলাহয়, ‘কেউ এ আদেশ না মানলে এতে তার নিজের এবং পরিবারের জীবন বিপন্ন হবে, সাবধান!’ বাইত লাহিয়া এলাকায় ৭০ হাজার মানুষের বাস। ওই নির্দেশের পরকমপক্ষে চার হাজার বাসিন্দা জাতিসংঘ পরিচালিত স্কুলে আশ্রয় নিয়েছে। অনেকেনিজেদের যানবাহনযোগে নিরাপদ আশ্রয়ের উদ্দেশ্যে চলে যাচ্ছে বলে গণমাধ্যমেরখবরে বলা হয়েছে।তবে গাজার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের এক বেতার বার্তায়ইসরায়েলের হুমকি নাকচ করে দিয়ে বাসিন্দাদেরকে বাড়ি ফিরে যেতে বলেছে।ইসরায়েলের হুমকি মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধভীতিসৃষ্টির জন্য বলে দাবি করেমন্ত্রণালয়।রোববার ভোরে ইসরায়েলি বিমান হামলায় গাজায় তিন বছর বয়সীএকটি মেয়েশিশু মারা গেছে। এরও কয়েক ঘণ্টা আগে গাজার পুলিশ প্রধানের বাসভবনলক্ষ্য করে চালানো বিমান হামলায় অন্তত ১৮ জন নিহত হয় বলে স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *