ইরাকে ‘ঐক্য সরকার’ আহ্বান ফ্রান্সের

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ইরাকে ইসলামিক স্টেট (আইএস) সুন্নি জঙ্গি গোষ্ঠীরঅগ্রযাত্রা থামাতে ‘ব্যাপকভিত্তিক একটি ঐক্য সরকার’গঠন করা প্রয়োজন।ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ল্যহো ফ্যাবিউস একথা বলেছেন।ইরাক সঙ্কট নিয়ে আলোচনা করার জন্য তিনি গতকাল রোববারবাগদাদ সফরে যান। যুক্তরাষ্ট্র আইএস যোদ্ধাদের ওপর তৃতীয় দফা বিমান হামলা চালানোরপর ফ্যাবিউস এ সফরে গেলেন।যুক্তরাষ্ট্র,ফ্রান্স এবং যুক্তরাজ্য ইয়াজিদিসএলাকায় ত্রাণ সরবরাহ শুরু করেছে। আইএস জঙ্গিরা গত সপ্তাহে সিনজার শহর দখল করার পরধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের হাজার হাজার সদস্য পার্বত্য এলাকায় পালিয়েগেছে।
সুন্নি এ জঙ্গি গোষ্ঠী ইরাক এবং সিরিয়ার বিশাল এলাকা দখল করেঅঞ্চলটিকে ‘খিলাফত’বা ‘ইসলামিক রাষ্ট্র’ঘোষণা করেছে।গত সপ্তাহে মার্কিনপ্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা জঙ্গিদের ওপর হামলার অনুমতি দেয়ার পর থেকে বিমান হামলাশুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র।রাজনৈতিক কোন্দলের কারণে ইরাক সরকার এ পর্যন্তআইএস জঙ্গিদের হুমকি মোকাবেলায় কার্যকরভাবে লড়তে ব্যর্থ হয়েছে।গত এপ্রিলেপার্লামেন্ট নির্বাচনের পর থেকে ইরাকের রাজনীতিবিদরা এখনো একটি সরকার গঠন করতেপারেননি। গতকাল রোববার সকালে ইরাকের রাজধানী বাগদাদে পৌঁছে ফ্রান্সেরপররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্যাবিউস বলেন, ইরাকে ব্যাপকভিত্তিক একটি ঐক্য সরকার প্রয়োজন।যাতে সব ইরাকিই মনে করতে পারে যে,সরকারে এবংসন্ত্রাসের বিরুদ্ধে এ লড়াইয়েতাদের প্রতিনিধিত্ব আছে’।
ইরাক সফরকালে সিনজার অঞ্চলে উদ্বাস্তু হওয়ামানুষদেরকে ফ্রান্সের প্রথম ত্রাণ সরবরাহ কর্মসূচি তদারক করবেন ফ্যাবিউস। পরে তিনিগোলযোগপূর্ণ কুর্দি শহর ইরবিল পরিদর্শনেও যাবেন।ইরবিল শহরটিও জিহাদিজঙ্গিদের হুমকির মুখে রয়েছে। ইরাকের উত্তরাঞ্চলে জঙ্গিদের অগ্রাভিযানে সংখ্যালঘুসম্প্রদায়গুলোর লাখ লাখ মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হচ্ছে।এর আগেআইএসআইএল নামে পরিচিত আইএস ইরাকের বৃহত্তম বাঁধেরও দখল নিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.