আলোচনায় সাঈদীর কান্না : রনির লেখা

স্টাফ রিপোর্টার: মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী আবার আলোচনায়। সরকার দলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির একটি লেখায় বহুল আলোচিত এ জামায়াত নেতার মোনাজাত এবং কান্নার বর্ণনায় তৈরি হয়েছে এ আলোচনা। গ্রেফতারের পর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে স্বল্পকালীন অবস্থানের স্মৃতি বর্ণনায় গোলাম মাওলা রনি লিখেছেন মাওলানা সাঈদীর কথা। সরকারের সমালোচনায় সরব কারাবন্দিদের কথা লিখতে গিয়ে তিনি লিখেছেন- গল্প বলতে সরকারের সমালোচনা। সব বন্দীই কায়মনোবাক্যে দিবানিশি সরকারের পতন কামনা করে দোয়া দরুদ পড়তে থাকে। তারা বলল, কেবল সাঈদী হুজুরের চোখের পানিতেই সরকার ভেসে যাবে। আমি বললাম, সেটা আবার কেমন? তারা বললেন, যতোদিন দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী এ সেলে ছিলেন ততোদিনই তিনি নামাজের ইমামতি করতেন। প্রত্যেক নামাজ শেষে তিনি আল্লাহর দরবারে হাত তুলে বলতেন হে আল্লাহ! আমি যদি অন্যায় করে থাকি তবে তুমি শাস্তিদাতা। আমাকে দুনিয়ায় শাস্তিদানের মাধ্যমে আখিরাতের কঠিন শাস্তি থেকে উদ্ধার করো। আর যদি কোনো অন্যায় না করে থাকি তবে তুমি এ মজলুমের জিম্মাদার হয়ে যাও। আমি দেখতে চাই পৃথিবীর কোনো জুলুমবাজের এতো স্পর্ধা যে তোমার জিম্মা থেকে কোনো নিরপরাধ ব্যক্তিকে টেনেহেঁচড়ে নিয়ে তারা শাস্তি প্রদান করে! এভাবে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সবাই মিলে চোখের পানি ফেলে বুক ভাসিয়ে মোনাজাত করতেন। গোলাম মাওলা রনি লিখেছেন, সবার কথা বিশেষত কান্নাকাটি এবং চোখের পানি ফেলার কথা শুনে আমি একটু দমে গেলাম। নিজের যতোটুকু ধর্মকর্ম করার অভ্যাস বা জ্ঞান রয়েছে তাতে জেনেছি মহান আল্লাহপাক সব সময় মজলুমের দোয়া কবুল করেন এবং মজলুমের চোখের পানি কখনো বৃথা যায় না। কোনো জমিনে যখন শাসক শ্রেণির অত্যাচারে আল্লাহর গজব নেমে আসে তখন জমিনের অন্য বান্দারাও সেই আজাব থেকে নিষ্কৃতি পায় না কারণ তাদের দায়িত্ব ছিলো জুলুমের প্রতিবাদ করা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *