আলমডাঙ্গা খুদিয়াখালীর ডিলার উম্বাদ আলী জোয়ার্দ্দারের বিরুদ্ধে অভিযোগ

 

চাতালে বসে নকল প্যাকেটে ভুট্টা ভরে গঙ্গা বীজ তৈরি

স্টাফ রিপোর্টার: আলমডাঙ্গা খুদিয়াখালী গ্রামের উম্বাদ আলী জোয়ার্দ্দারের চাতালে ভুট্টাবীজ ভেজাল করা নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। উম্বাদ আলী জোয়ার্দ্দার তার লোকজন দিয়ে খুদিয়াখালী গ্রামের চাতালে গোপনে ভুট্টায় রঙ মাখিয়ে নকল প্যাকেটে ভরে স্বনামধন্য ভারতীয় গঙ্গা ব্রান্ডের আসল ভুট্টাবীজ বলে বাজারজাত করছেন। ফলে ২০ টাকা কেজি দরের ভুট্টা প্যাকেটের গুণে বিক্রি হচ্ছে প্রায় ৬শ টাকা দরে। এতে ভুট্টাচাষিরা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।

ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করে জানান, আলমডাঙ্গা উপজেলাধীন জেহালা ইউনিয়নের খুদিয়াখালীর মৃত খোকা জোয়ার্দ্দারের ছেলে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সারডিলার। তিনি কয়েক দশক ধরে ডিলারি ব্যবসা করে আসছেন। সেই সুবাদে মুন্সিগঞ্জ পশুহাটের ওপর সরকারি জমিতে অবৈধভাবে গড়ে তোলেন গুদাম ও গদিঘর। পরবর্তীতে খুদিয়াখালী শ্মশানঘাটের কাছে নিজ জমিতে গড়ে তোলেন চাতাল। ওই চাতালঘরে শ্রমিকদের দিয়ে ভেজাল ব্যবসার কর্মকাণ্ড চালানো হয়ে থাকে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। তার বিরুদ্ধে সার ও কীটনাশক ভেজাল করারও অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি ভুট্টার বীজ নকল করা নিয়ে তার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। এতে এলাকার কৃষকেরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। অভিযোগকারীরা জানান, দীর্ঘদিন ধরেই ভেজাল ভুট্টাবীজ বিক্রি করে তিনি চাষিদের সাথে প্রতারণা করে আসছেন। সাধারণ ভুট্টা ২০ টাকা কেজি দরে কিনে তিনি ভারতীয় গঙ্গা ব্রান্ডের নকল মোড়ক তৈরি করে চাতালে নিয়ে আসেন। কয়েকদিন ধরে ওই চাতালে ভুট্টায় লাল রঙ মাখিয়ে প্যাকেটজাত করার সময় স্থানীয় কৃষকদের নজরে আসে। তবে বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর তিনি তার কর্মচারী দিয়ে নকল প্যাকেটগুলো সরিয়ে ফেলেছেন। অন্যদিকে এলাকার কৃষকরা অভিযোগ করে বলেছে, সম্প্রতি সরকার ইউরিয়া সারের মূল্য কেজিতে ৪ টাকা কমানোর পর থেকে উম্বাদ আলী জোয়ার্দ্দারের দোকানে আর সার পাওয়া যাচ্ছে না। তিনি কৌশলে চড়া দামে অন্যান্য সারের দোকানে তা বিক্রি করে দিচ্ছেন। ফলে চাষিরা ১৬ টাকা দরের ইউরিয়া সার ১৯-২০ টাকা কেজি দরে কিনতে বাধ্য হচ্ছে। এ নিয়ে এলাকার সচেতনমহল ও কৃষকদের মধ্যে চরম অসন্তোষ ও ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। কেউ কেউ বলেছেন ভুট্টার বীজ ভেজাল করা হচ্ছে এ কথা জানাজানি হওয়ার পর নকল ভুট্টাবীজ দেশের উত্তরাঞ্চলে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রশাসন উম্বাদ আলী জোয়ার্দ্দারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে বলে ভুক্তভোগী মহল আশা করে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *