আলমডাঙ্গার রামনগর গ্রামে মারধর ও ফসল কেট দেয়ার অভিযোগ

ভালাইপুর প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার রামনগর গ্রামে একজনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে। কেটে দেয়া হয়েছে কলাগাছ, ধান, মেহগনি গাছ, ঝাল, হলুদ ও পানবরজ। আহত আকবর আলীকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন।

অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, গাংনী ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের আকবর আলীর ছেলের সাথে ঘটক মারফত একই গ্রামের নজরুল ইসলামের মেয়ের বিয়ের প্রস্তাব দেয়া হয়। ছেলে পক্ষ বিয়েতে রাজি না হলে নজরুলের পরিবারের লোকজন গত বৃহস্পতিবার ছেলের পিতা আকবর আলীকে পিটিয়ে আহত করে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। আকবর আলীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিক্যালে কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। এ বিষয়ে স্থানীয় মেম্বার কলিম উদ্দিনের উদ্যোগে সোমবার সন্ধ্যার পর সালিস বসার কথা ছিলো। তার আগে মৃত টেংরা মণ্ডলের ছেলে নজরুল ইসলাম, মতিয়ার, মুক্তার, বক্তিয়ার ও নজরুল ইসলামের ছেলে আতিয়ার সঙ্গবদ্ধ হয়ে গত রোববার রাতের আকবর আলী ও তার ভাইদের দেড় বিঘা জমির কলাগাছ, ১০ কাঠা জমির ধান, ৫ কাঠা জমির হলুদ, মেহগুনি ও সেগুনের ৪০টি গাছ,  ১০ কাঠা জমির ঝাল, বেগুন এবং পানবরজ কেটে তছরুপ করে। এ বিষয়ে আগবর আলীর ভাইয়েরা আলমডাঙ্গা থানায় অভিযোগ করবেন বলে জানান। অভিযুক্ত নজরুর গঙের সাথে এশাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাদের পাওয়া যায়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *