আলমডাঙ্গার মুন্সিগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতাকে পিটিয়ে জখম : যুবলীগ নেতা হিরালালের বিরুদ্ধে থানায় মামলা

 

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার মুন্সিগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতা ফজলুল হককে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। হিরালাল তাকে পিটিয়ে জখম করে বলে অভিযোগ তুলে থানায় নালিশ করা হয়েছে। হিরালাল পলাতক রয়েছে।

জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার জেহালা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হককে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত ১৫ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে পিটিয়ে জখম করা হয়। এ ব্যাপারে আলমডাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ১৫ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মুন্সিগঞ্জ রেলবাজারের একটি দোকানে আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান নেতা ফজলুল হক পান কিনতে আসেন। এ সময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে জেহালা বাজারের মৃত জ্ঞানেন্দ্র নাথের ছেলে হিরালাল মোটরসাইকেলযোগে উপস্থিত হয়ে ফজলুল হককে গালিগালাজ করতে থাকে এবং উপস্থিত লোকজনের মধ্যে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে। স্থানীরা তাকে উদ্বার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। রাতেই আলমডাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। এ ব্যাপারে গত বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে জেহালা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠন জেহালা ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে জরুরি বৈঠকের আয়োজন করে। ওই বৈঠকে হিরালালের শাস্তির দাবি তোলা হয়। বক্তারা বলেন, এর আগে আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বর্তমান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক খাইরুল ইসলামকে পিটিয়ে জখম করে। বৈঠকে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীসহ ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত হিরালাল পলাতক রয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *