আলমডাঙ্গার ফরিদপুর দোহারপাড়ার ইসমাইলের কাণ্ড : ৫ম স্ত্রী নাজমার দু লাখ টাকা হাতিয়ে লাপাত্তা

জীবননগর ব্যুরো: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার ফরিদপুর দোয়ারপাড়ার ইসমাইল হোসেন জীবননগর শাপলাকলিপাড়ার নাজমা খাতুনকে বিয়ে করে বিদেশে যাওয়ার কথা বলে তাকে ফতুর করে পথে বসিয়েছে। ওমানে যাওয়ার কথা বলে ৫ম স্ত্রী নাজমা ও তার পরিবারের নিকট থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে সে গা ঢাকা দিয়েছে। এ ঘটনায় সন্তানদের নিয়ে পথে বসে পড়েছে নাজমা ওরফে আল্গুনি।

অভিযোগে জানা যায়, আলমডাঙ্গা উপজেলার ফরিদপুর দোয়ারপাড়ার তাহাজউদ্দিনের ছেলে ইসমাইল হোসেন প্রথম স্ত্রী মারা গেছে এ কথা বলে তথ্য গোপন করে জীবননগর শালাকলিপাড়ার মৃত ইউছুপ আলীর মেয়ে নাজমাকে বিয়ে করে। বিয়ের পর নাজমা জানতে পারে তার স্বামী বিয়ে পাগল একজন প্রতারক। বিয়ের পর ইসমাইল জীবননগর শাপলাকলিপাড়ায় স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করে। তাদের ঘরে চাঁদনী নামের এক বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। ৫ম স্ত্রী নাজমার আস্থা অর্জন করার পর সে বিদেশে যাওয়ার কথা বলে নাজমার নামে থাকা ৯ কাঠা জমি বিক্রি করে এর সমুদয় টাকা হাতিয়ে নেয়। সর্বশেষ গত ১৩ জুন ওমানে যাওয়ার ফ্লালাইট হয়ে গেছে এখনই দু লক্ষাধিক টাকা লাগার কথা বলে। স্ত্রী নাজমা সুখের আশায় এনজিওসহ বিভিন্ন সংস্থা থেকে চড়া সুদে ও জমি বন্ধক রেখে দু লাখ ১৫ হাজার টাকা নিয়ে প্রতারক স্বামী ইসমাইলের হাতে তুলে দেন। এ টাকা নিয়ে সে ঢাকায় যাওয়ার কথা বলে লাপাত্তা হয়ে গেছে। এ ঘটনায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে নাজমা। সে প্রতারক ইসমাইলের গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.