আলমডাঙ্গার জোড়গাছা গ্রামে বিয়ের দাবিতে বাগদাত্তা স্বামীর বাড়িতে বাগদাত্তা স্ত্রীর তিনদিন ধরে অনশন

 

ঘোলদাড়ি প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার আইলহাস ইউনিয়নের জোড়গাছা গ্রামের বিয়ের দিন তারিখ ঠিক করে বিয়ে না করায় বিয়ের দাবিতে বাগদাত্তা স্ত্রী বাগদাত্তা স্বামীর বাড়িতে ৩ দিন ধরে অনশন করছে। একাধিক দালালচক্র ছেলে পক্ষের কাছ থেকে টাকা-পয়সা হাতিয়ে চম্পট দিয়েছে।

জানা গেছে, গত কয়েক দিন আগে থেকে আলমডাঙ্গা উপজেলার আইলহাস ইউনিয়নের জোড়গাছা গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে সিংগাপুর প্রবাসী বাশারের সাথে গাংনী ইউনিয়নের সাহেবপুর গ্রামের লাল মোহাম্মদের মেয়ে রোকসানার সাথে বিয়ের দিন তারিখ ঠিক হয়। পরানো হয় স্বর্ণের আংটি। ৪ দিন ধরে ঘটা করে ক্ষির খাওয়া, গায়ে হলুদ ও সামাজিক অনুষ্ঠান শেষে গতকাল শুক্রবার বিয়ের দিন ছিলো। কিন্তু গত পরশু বৃহস্পতিবার রাতে ছেলে পক্ষের লোকজন মোবাইলফোনে মেয়ে পক্ষকে জানায় মেয়ে তাদের পছন্দ নয়। তাই বিয়ে করা সম্ভব হচ্ছে না। এ সংবাদের ক্ষিপ্ত হয়ে গতকাল সকালে বাগদাত্তা স্ত্রী রোকসানা আলমসাধুযোগে বাগদাত্তা স্বামী বাশারের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে বিয়ের দাবি তোলে। তাকে মেয়ে ও ছেলে পক্ষের লোকজন অনেক বুঝিয়েও বাড়ি ফেরাতে পারেনি।

গতকাল সরেজমিন ঘুরে বাগদাত্তা স্ত্রী রোকসানার সাথে কথা হলে সে মাথাভাঙ্গাকে জানায়, আমি মরতে রাজি আছি কিন্তু বিয়ে না করে ফিরবো না। ফিরতে হলে স্বামীকে সাথে নিয়েই ফিরবো। এ ব্যাপারে গ্রামবাসী জানায়, দফায় দফায় এলাকার ও এলাকার বাইরের একাধিক দালালচক্র রোকসানাকে সরিয়ে নেয়ার কথা বলে বর পক্ষের কাছে থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

অপরদিকে রোকসানার পিতাকে মেয়ের বিয়ের প্রতিশ্রতি দিয়ে তাদের কাছ থেকে কয়েকটি দালালচক্র মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত রোকসানা বাগদাত্তা স্বামীর বাড়িতে অবস্থান করছিলো।

Leave a comment

Your email address will not be published.