আলমডাঙ্গার খুদিয়াখালী গ্রামের যুবতীকে ভুয়া কাবিননামা দেখিয়ে বিয়ের প্রতারণা করা মামলায় দুজন আটক

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গার খুদিয়াখালী গ্রামের যুবতীকে ভুয়া কাবিননামা দেখিয়ে বিয়ের প্রতারণা করা মামলায় পুলিশ কাতর আলী ও ঠাণ্ডুকে আটক করেছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে তাদেরকে আটক করে। মোবাইলে প্রেমসম্পর্ক করে ভুয়া কাবিননামা দেখিয়ে কয়েক মাস তার সাথে সংসার করে পরে তা অস্বীকার করায় ওই যুবতী মামলা দায়ের করে।
জানা গেছে, উপজেলার খুদিয়াখালী গ্রামের ওমর আলীর মেয়ে সীমা খাতুন কিছুদিন আগে তার মামার বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের হায়দারপুর গ্রামে বেড়াতে যায়। সেখান থেকে ওই গ্রামের কাতব আলীর ছেলে ফারুক হোসেনের সাথে পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে মোবাইলে গড়ে ওঠে প্রেমসম্পর্ক। এমই অবস্থায় ৭ মাস আগে ফারুক ভুয়া কাবিননামা বানিয়ে সীমাকে সে বিয়ে করেছে বলে তাদের বাড়িতে স্বামী হিসেবে আসা যাওয়া শুরু করে। ৫ মাস এভাবে তার সাথে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে কাটানোর পর যুবতী তাকে বাড়ি নিয়ে যেতে বললে সে সীমাকে বাড়ি না নিয়ে গিয়ে প্রতারণা শুরু করে। ফারুক কুমিল্লায় অবস্থান করায় ঘটনাটি তার পিতা কাতব আলীকে জানালে তারাও অসদাচরণ করাসহ নানাভাবে তাকে নির্যাতন করে। এরই এক পর্যায়ে গত ৬ ফেব্রুয়ারি সীমা খাতুন ভুয়া কাবিননামা দেখিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণা করায় আলমডাঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করে। এ মামলার আসামি হিসেবে গত বৃহস্পতিবার রাতে থানার এসআই রফিক হায়দারপুর গ্রাম থেকে এ মামলার আসামি ফরমান মণ্ডলের ছেলে কাতর আলী ও তার ভাই ঠাণ্ডুকে আটক করে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *