আলমডাঙ্গার ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ের অভিশাপ থেকে রক্ষা পেলো সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী মুন্নি

 

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার পারকৃষ্ণপুর গ্রামের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী মুন্নি বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে। আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানার অফিসার ইনচার্জের নির্দেশে বিয়ে বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গার খাদিমপুর ইউনিয়নের পারকৃষ্ণপুর গ্রামের আসাদুল হকের মেয়ে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী। গতকাল শুক্রবার তার বিয়ের দিন ছিলো। আয়োজন চলছিলো ঘটা করে। ২-৩ দিন ধরে চলছিলো ক্ষির খাওয়া ও গায়ে হলুদ। বাড়ির সামনে বিয়ের গেট। বাড়িতে আত্মীয়স্বজনে ভর্তি। পত্রিকায় মুন্নির বিয়ের খবর ছাপা হলে সকাল ৯টার দিকে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও আলমডাঙ্গা থানার ওসির নির্দেশে মুন্নির বিয়ে বন্ধ করে দেয় পুলিশ। সকাল থেকে টানা দুপুর পর্যন্ত বিয়ে বাড়িতে বসে থাকে পুলিশ। বন্ধ হয়ে যায় বিয়ের আয়োজন। দুপুরে বিয়ে বাড়িতে বরসহ বিয়ের বরযাত্রী আসে। বরযাত্রী খাওয়া দাওয়া করে বিয়ে না করেই ফিরে যায়।তবে গোপনে বিয়ে দেয়ার জন্য গতরাতে জোর প্রচেষ্টা চলছিলো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *