আন্দুলবাড়িয়া মিস্ত্রিপাড়ার মাদক সম্রাজ্ঞী খুতমান বিবির মাদকব্যবসায় অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়িয়া মিস্ত্রিপাড়ার মাদকসম্রাজ্ঞী খুতমান বিবি ওরফে বুড়ি বাবলুর দেদারছে মাদকব্যবসা কবলে পড়ে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। দেদারছে মদ, গাঁজা, চুল্লু, ও তাড়ি বিক্রি করে চলেছে এ মাদকব্যবসায়ী। এলাকাবাসী তার মাদকব্যবসায়ে বাধা সৃষ্টি করলে তিনি হুঙ্কার দিয়ে বলে, কেও তার মাদকব্যবসা বন্ধ করতে পারবে না। এমনকি পুলিশ-বিজিবিও নয়। কারণ তাদেরকে আমি নিয়মিত পয়সা দিয়ে ব্যবসা করি। বুড়ি বাবলুর এ হুঙ্কার ও মাদকব্যবসার কবলে পদে এলাকায় যেমন মাদকসক্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে তেমনি তরুন ও যুব সমাজ এর প্রতি আসক্ত হচ্ছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, আন্দুলবাড়িয়া মিস্ত্রিপাড়ার বাবলুর স্ত্রী খুতমান বিবি ওরফে বুড়ি বাবলু দীর্ঘদিন তার বাড়িতে দেদারছে মদ, তাড়ি, গাঁজা ও চুল্লু বিক্রি করে আসছে। মাদকব্যবসার অভিযোগে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাকে তিনবার গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে। প্রতিবারই সে ছাড়া পেয়ে এসে আবার মাদকব্যবসা শুরু করে। বর্তমানে তার মাদকব্যবসা জমজমাট। প্রতিদিন তার বাড়ি থেকে মাদকাসক্তরা নেশা করে বাইরে এসে মাতলামি করে এলাকার পরিবেশ কলুষিত করে তোলে। এছাড়াও এলাকার তরুণ ও যুবসমাজ তার এ মাদক আখড়ার প্রতি আকৃষ্ঠ হয়ে পড়ছে। এ অবস্থায় এলাকাবাসী তার মাদকব্যবসা বন্ধ করার উদ্যোগ নিলে নিলে হুঙ্কার দিয়ে বলে ওঠেন ‘কেও তার মাদকব্যবসা বন্ধ করতে পারবে না, কারণ আমি নিয়মিত পুলিশ-বিজিবিকে পয়সা দিই।’ এলাকাবাসীর প্রশ্ন মাদক সম্রাজ্ঞী বুড়ি বাবলু কীভাবে প্রকাশ্যে ব্যবসা করছে এবং এমন হুঙ্কার দেয়ার সাহস সে কোথায় পায়?

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *