আজ জিম্বাবুয়ে-পাকিস্তান টেস্ট লড়াইয়ে মুখোমুখি

মাথাভাঙ্গা অনলাইন :   টি২০ এবং ওয়ানডে সিরিজ শেষে এবার টেস্ট লড়াইয়ে নামছে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে ও পাকিস্তান। দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে আজ মুখোমুখি হচ্ছে দুই দল হারারে ক্রিকেট গ্রাউন্ডে বাংলাদেশ সময় বেলা দুইটায় শুরু হবে ম্যাচটি।দুই ম্যাচের টি-২০ সিরিজ দিয়ে দেশের মাটিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে নামে জিম্বাবুয়ে। দুটি ম্যাচেই খারাপ পারফরমেন্সের ফলে সিরিজটি ২-০ ব্যবধানে হারে স্বাগতিকরা। তবে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে শুরুটা দুর্দান্তই ছিল জিম্বাবুয়ের। প্রথম ম্যাচেই পাকিস্তানকে চমকে দেয় তারা। ৭ উইকেটের জয় দিয়ে সিরিজে যাত্রা শুরু করে ব্রেন্ডন টেলরের দল।

কিন্তু প্রথম ওয়ানডেতে ভালো খেলার ধারাবাহিকতা পরের দুই ম্যাচে অব্যাহত রাখতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। ফলে শেষ দুটি ম্যাচ হেরে সিরিজ জয়ের সুর্বন সুযোগটা হাতছাড়া করে তারা। ৯০ ও ১০৮ রানের ব্যবধানে শেষ দুই ম্যাচে হেরে যায় জিম্বাবুয়ে। টি-২০ এবং ওয়ানডে সিরিজ হারের ক্ষত নিয়েই পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলতে নামছে জিম্বাবুয়ে।
তারপরও  টেস্ট সিরিজে ভালো করার ইচ্ছা পোষণ  করে স্বাগতিক অধিনায়ক ব্রেন্ডন টেলর বলেন, ‘টি-২০ সিরিজে ভালো খেলতে না পারলেও, ওয়ানডে সিরিজে শুরুটা ভালো আমরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সিরিজটি জিততে পারিনি। তবে টেস্ট সিরিজ ভিন্ন ফরম্যাট। এখানে অন্যরকম চিন্তা নিয়ে খেলতে হবে। ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হবে খেলোয়াড়দের। আশা করছি টেস্ট সিরিজে সবাই নিজেদের সেরাটাই দেয়ার চেষ্টা করবে এবং ভালো ক্রিকেট খেলবে।’
দাপুটে পারফরমেন্স দিয়ে টি-২০ এবং ওয়ানডে সিরিজ জিতে নেয়ায় বেশ খোশমেজাজেই রয়েছে পাকিস্তান। কিন্তু টেস্ট সিরিজে জিম্বাবুয়েকে সহজভাবে নিচ্ছেনা পাকিস্তান । সফরকারী অধিনায়ক মিসবাহ উল হক বলেছেন, প্রতিপক্ষ হিসেবে জিম্বাবুয়ে শক্তিশালী দল। তাদের সহজভাবে নেয়ার কোনো অবকাশ নেই। আগের কোন ম্যাচেই তাদের সহজভাবে নেইনি আমরা। টেস্ট সিরিজেও নেব না। আমাদের মূল লক্ষ্যই থাকবে সিরিজ জয়। তাই দুটো টেস্টেই নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দেবো।image_43011_0
এখন পর্যন্ত টেস্টে মোট ১৫ বার মুখোমুখি হয়েছে জিম্বাবুয়ে ও পাকিস্তান। এর মধ্যে জয়ের পাল্লাটা সবচেয়ে বেশি ভারী পাকিস্তানেরই। ৯টি ম্যাচ জিতেছে পাকরা। আর দুটি ম্যাচে জয় পেয়েছে জিম্বাবুয়ে। বাকি চারটি ম্যাচ হয়েছে ড্র। সর্বশেষ ১৯৯৮ সালে পাকিস্তানকে হারিয়েছিল জিম্বাবুয়ে। সদ্যসমাপ্ত ওয়ানডে সিরিজের মতো টেস্ট সিরিজেও কোনো ম্যাচ জিততে পারে স্বাগতিকরা তবে ১৫ বছর পর আবারো রেকর্ড বইয়ে নিজেদের নামটা অন্যভাবে লেখাতে সক্ষম হবে জিম্বাবুয়ে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *