অ-মুসলিম উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্ব দিচ্ছে আসাম

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভারতেরআসাম রাজ্য সরকার গত ৪৩ বছর ধরে সেখানে বসবাসরত অমুসলিম বাংলাদেশিদেরনাগরিকত্ব দিতে যাচ্ছে। কংগ্রেসি রাজ্য সরকার গত বুধবার এ-সংক্রান্ত একটিপ্রস্তাব অনুমোদন করেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, ধর্মীয় নির্যাতন ওবৈষম্যের শিকার হয়ে ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চের পর আসামে প্রবেশ করা লোকদেরকেবিদেশি হিসেবে চিহ্নিত করা হবে না। আসামে ঠিক কতজন উদ্বাস্তু রয়েছে, তাজানা যায়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে তাদের সংখ্যা হবে ৮৫ লাখ। তাদের বেশিরভাগই হিন্দু। বাকিরা বৌদ্ধ, গারো, রাজবংশী, আদিবাসী উপজাতি ও বিষ্ণুপ্রিয়ামনিপুরি। এসব উদ্বাস্তু বাংলাদেশ-সংলগ্ন আসাম, পশ্চিমবঙ্গ ও ত্রিপুরায় বাসকরছে।আসামের বন ও পরিবেশমন্ত্রী রকিবুল হোসেন জানান, এসব লোক বিদেশি হিসেবে চিহ্নিত হবে না। তারা বিচার ও শিক্ষার মতোমৌলিক অধিকার পাবে, তারা বহিষ্কারের হুমকিতে পড়বে নাএবং গুজরাট ওরাজস্তানে একই ধরনের পরিস্থিতির শিকার লোকজনকে যেভাবে নাগরিকত্ব দেয়াহয়েছেতাদেরকেও দেয়া হবে।উল্লেখ্য, ১৯৮৫ সালে তদানিন্তন প্রধানমন্ত্রীরাজীব গান্ধীর উপস্থিতিতে অল আসাম স্টুডেন্টস ইউনিয়ন ও কেন্দ্রীয় সরকারেরমধ্যে স্বাক্ষরিত আসাম চুক্তিতে ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চের মধ্যরাতের পর থেকেআসামে প্রবেশকারী প্রত্যেক ব্যক্তিকে বহিষ্কারের কথা বলা হয়েছিলো। বিদেশিবিরোধী ছয় বছরের আন্দোলনের পর ওই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিলো।

Leave a comment

Your email address will not be published.