অসামাজিক কাজে লিপ্তাবস্থায় ঝিনাইদহে পতিতাসহ চারজন আটক

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহে নজরুল ইসলাম (৪২) নামে এক কলেজ শিক্ষকসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। শহরের কুষ্টিয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকার সততা ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামে একটি প্যাথলজিক্যাল ক্লিনিক থেকে গতকাল রোববার রাতে তাদেরকে আটক করা হয়। আটক নজরুল ঝিনাইদহ শিশুকুঞ্জ স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রভাষক শহরের আরাপপুর মাস্টারপাড়ার মৃত রজব আলীর ছেলে।

পুলিশ বলেছে, অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার সময় হাতেনাতে কলেজ শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের ছলনা করে নারীদের সম্ভ্রমহানি করতেন বলে অভিযোগ রয়েছে। আটককৃত অন্যরা হলো-শহরের কুষ্টিয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকার সততা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক আরাপপুর এলাকার আব্দুল খালেকের ছেলে আকরামুজ্জামান (৫০), শৈলকুপার ভাটই বাজারের আনসার আলীর মেয়ে তুলি খাতুন (১৯)ও হরিণাকুণ্ডুর গাড়াবাড়িয়া গ্রামের আবু বক্করের ছেলে আবুহান (৩২)।

ঝিনাইদহ সদর থানার এসআই সালাহউদ্দীন জানান, রোববার রাতে ঝিনাইদহ শহরের আরাপপুর এলাকার সততা ক্লিনিকে নজরুল ইসলাম এক যুবতীকে নিয়ে অসামাজিক কাজে লিপ্ত হন। এলাকাবাসী বিষয়টি জানতে পেরে কলেজশিক্ষক নজরুলসহ চারজনকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ তাদের থানায় নিয়ে আসে।

ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহাবুদ্দীন আজাদ জানান, অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগে ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি মামলা হয়েছে। এদিকে এ খবর সংগ্রহের জন্য রোববার রাতে কয়েকজন সংবাদকর্মী ঝিনাইদহ সদর থানার গেলে ডিউটি অফিসার এসআই রাশিদা সুলতানা তাদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন।

বিষয়টি নিয়ে ঝিনাইদহের শিশুকুঞ্জ স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সফিকুল বাশার জানান, তিনি বিষয়টি জানতে পেরে কলেজের সভাপতিকে অবহিত করেছেন। ওই প্রভাষকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *