অসহায় মা ছেলের সংসারের সম্বল গাভীটি বাছুর দিলো ঠিকই, এক সাথে তিনটি : সবগুলোই মরা

 

স্টাফ রিপোর্টার: দরিদ্র পরিবারের গাভী গরুটি আর কয়েকটি হাস-মুরগিই সম্বল। গাভীটির বাছুর হলে কমপক্ষে ৫ কেজি করে দুধ দেয়। গাভীটি গভিন হলে মা ছেলের সংসারের অভাব ঘোচার আশাও যেন জেগে ওঠে। উঠেছিলোও তাই। কিন্তু সেই আশার গুড়ে বালি দিয়ে গাভীটি একই সাতে তিনটি বাছুর দিলো। তিনটি বাছুরই মরা।

দুধ দেবে বলে যাদের নিকট থেকে অগ্রীম টাকা নিয়ে ছেলের লেখাপড়ার খরচ জোগিয়েছে সেই জোগানদারদের কী দিয়ে ঠেকাবেন সংগ্রামী মারুফ তার অসহায় মা? মারুফ যখন শিশু তখন থেকেই মারুফের মা স্বামীহারা। ফলে মারুফের মামা বাড়ি তথা মারুফের মায়ের পিতার বাড়িতেই সংগ্রাম করে বেঁচে আছেন। আর মারুফ লেখাপড়া করে মানুষের মতো মানুষ হওয়ার স্বপ্নে ধীরে ধীরে এগিয়ে চলেছে। ইতোমধ্যেই মারুফ অনার্স পাস করেছে। ওই গাভীর দুধ বিক্রি করে পাওয়া টাকা দিয়েই মারুফ মাস্টার্স ভর্তি হবে। পড়বে, দু বেলা দু মুঠো খাবারের জোগান হবে। এ স্বপ্ন ভেঙে গেলো। গাভীটি বেঁচে থাকলেও তিনটি বাছুর মরার কারণে ওরই মা ছেলে পড়েছে চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে। কে এদের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়াবে? মরা বাছুরগুলো সামনে নিয়ে মারুফের মা যেন এ প্রশ্নটিই রেখেছে সমাজের কাছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *