অভিযুক্ত দেবযানী ভারতের পথে

মাথাভাঙ্গা মনিটার: ভিসা জালিয়াতি ও ভুল তথ্য দেয়ার অভিযোগে ভারতীয় কূটনীতিক দেবযানী খোবড়াগাড়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে যুক্তরাষ্ট্রের আদালত। তার গ্রেফতার করা নিয়ে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে প্রায় একমাস ধরে চলা কূটনৈতিক টানাপড়েনের মধ্যেই নিউইয়র্কের গ্র্যান্ড জুরি গত বৃহস্পতিবার দেবযানীর বিচার শুরুর এ আদেশ দেয়। অবশ্য কূটনৈতিক হিসেবে আপাতত বিচার প্রক্রিয়া থেকে রেহাই পাচ্ছেন ৩৯ বছর বয়সী দেবযানী। যুক্তরাষ্ট্র সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী ইতোমধ্যে তিনি দেশের পথে উড়াল দিয়েছেন বলে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে জানিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি প্রীত ভারারের বরাত দিয়ে গণমাধ্যম বলেছে, অভিযোগ গঠন হলেও কূটনৈতিক হিসেবে রেহাই পাচ্ছেন বলে দেবযানীর মামলাটি আপাতত স্থগিত থাকছে। ভবিষ্যতে কূটনৈতিক মযার্দা ছাড়া কখনো যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করলে তাকে আবার বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। গৃহকর্মীর ভিসা আবেদনে মজুরি নিয়ে মিথ্যা তথ্য দেয়া এবং তাকে চুক্তি অনুযায়ী পারিশ্রমিক না দিয়ে বেশি কাজ করানোর অভিযোগে গত ১২ ডিসেম্বর নিউইয়র্কে ভারতীয় কনস্যুলেটের ডেপুটি কনসাল জেনারেল দেবযানী খোবরাগাড়েকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

কিন্তু তাকে প্রকাশ্যে হাতকড়া পরিয়ে নিয়ে যাওয়া, বিবস্ত্র করে দেহ তল্লাশি এবং মাদক কারবারি ও যৌনকর্মীদের সাথে এক সেলে রাখার খবর প্রকাশিত হওয়ার পর উত্তপ্ত হয়ে ওঠে দু দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক। ওই ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখায় ভারত। নয়া দিল্লিতে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস ও কূটনীতিকদের সুযোগ সুবিধা কমিয়ে দেয়ার পাশাপাশি দেবযানীকে অপমান করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *