অপহরণ নাকি নিরুদ্দেশের পর বাড়ি ফিরে বলা হলো মনগড়া গল্প?

 

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: অপহরণ? নাকি নিজেই নিরুদ্দেশ হয়ে ফেরার পর অপহরণের গল্প বলে বাড়তি দৃষ্টি আকর্ষণ? চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গার আল-ইকরা ক্যাডেট একাডেমীর ৫ম শ্রেণির ছাত্র সৈকতের কথা শুনে অনেকেই এসব প্রশ্ন তুলেছে। সৈকত অবশ্য বলেছে, সে অপহরকচক্রের ডেরা থেকে কৌশলে পালিয়ে বাড়ি ফিরেছে।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গা শহরের নিকটবর্তী আসাননগর গ্রামের ইমাদুল ইসলামের ছেলে সাগর হোসেন সৈকত আলমডাঙ্গা ওয়াপদা কলোনির আল-ইকরা ক্যাডেট একাডেমীর ৫ম শ্রেণির ছাত্র। গত মঙ্গলবার সকাল সাতটার দিকে সে বিদ্যালয়ে যায়। বিদ্যালয় থেকে বের হয়। এরপর সে নিরুদ্দেশ হয়। গতকাল সে বাড়ি ফিরে বলে, বিদ্যালয়ে যাওয়ার পর দেখি ব্যাকরণ বই নেই। বইটি নেয়ার জন্য বাইসাইকেলযোগে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হই। পথিমধ্যে মাক্রোযোগে কয়েকজন এসে জোর করে সাইকেলসহ মাইক্রোবাসে তুলে নেয়। অজ্ঞান করে। সৈকত বলেছে, জ্ঞান ফিরলে দেখি সেমিপাকা একটি ঘরে আটক। কেউ নেই। ঘরের দেয়াল টপকে বের হয়ে দৌড়ে কুষ্টিয়া শহরের কোর্ট স্টেশনে পৌছায়। সেখান থেকে বাড়ি ফিরি।

সৈকত কী সত্যি অপহরণ হয়েছিলো? বিশ্বাস-অবিশ্বাসের দোলাচাল সৃষ্টি হলেও স্থানীয় অভিভাবকদের মধ্যে অবশ্য আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *